সুন্দরবনকে বিজয়ী করতে সবার সহযোগিতা প্রয় োজন

সুন্দরবনকে বিজয়ী করতে সবার সহযোগিতা প্রয়োজন

প্রাকৃতিক সপ্তাশ্চর্য নির্বাচনে সুন্দরবনকে বিজয়ী করতে যার যার অবস্থান থেকে এগিয়ে আসতে হবে। সুন্দরবনের কথা সারা বিশ্বে ছড়িয়ে দেওয়ার পাশাপাশি সবাইকে ভোট দিতে আগ্রহী করে তোলা জরুরি। গতকাল শনিবার বিশ্ব পর্যটন দিবস ২০১০ উপলক্ষে ঢাকায় জাতীয় প্রেসক্লাবে ‘পর্যটন শিল্পের বিকাশে দেশের গণমাধ্যমের ভূমিকা’ শীর্ষক গোলটেবিল বৈঠকে বক্তারা এসব কথা বলেন। বাংলাদেশ ওয়ান্ডার্স প্রমোশন ফাউন্ডেশন (বিডব্লিউপিএফ) ও বাংলাদেশ ট্যুরিজম প্রমোশন ফাউন্ডেশন (বিটিপিএফ) আয়োজিত বৈঠকে মূল প্রবন্ধ পড়েন বিডব্লিউপিএফের সভাপতি হারুন অর রশিদ।
বৈঠকে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন খুলনা সিটি করপোরেশনের মেয়র তালুকদার আবদুল খালেক। বিটিপিএফের সভাপতি মো. নাজির মিয়ার সভাপতিত্বে বৈঠকে বক্তব্য দেন পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী মো. মাহবুবুর রহমান, সাংসদ শেখ মুজিবুর রহমান, মীর শওকত আলী, মোজাম্মেল হোসেন, মোল্লা জালাল উদ্দিন, ননী গোপাল, সুন্দরবন সমর্থক কমিটির আহ্বায়ক লিয়াকত আলী, বিডব্লিউপিএফের উপদেষ্টা মো. কামাল উদ্দিন আহমদ, মহাসচিব আতা উল্লাহ খান, বাংলাদেশ সাইবার ক্যাফে ওনার্স অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি নাজমুল করিম ভূঁইয়াসহ অনেকে।
বক্তারা বলেন, প্রাকৃতিক সপ্তাশ্চর্য নির্বাচনে সুন্দরবনকে বিজয়ী করতে গণজাগরণ সৃষ্টির প্রয়োজন। এ ক্ষেত্রে গণমাধ্যম বিশেষ ভূমিকা পালন করতে পারে। তবে সবার আগে সুন্দরবনের অবকাঠামোগত উন্নয়নটা জরুরি এবং তা যত দ্রুত সম্ভব করা উচিত।
চট্টগ্রামে সুন্দরবনের পক্ষে ভোট গ্রহণ: শনিবার সকালে চট্টগ্রামের রেলওয়ে স্টেশন-সংলগ্ন সৈকত কমপ্লেক্সে অনলাইনে ভোট দেওয়ার আয়োজন করে ‘সাড়া দাও বাংলাদেশ’ নামের একটি সংগঠন। আর এটি ছিল বাংলাদেশ পর্যটন করপোরেশন ও পর্যটন রিয়েল এস্টেট ইনভেস্টর্স অ্যাসেসিয়েশন অব বাংলাদেশ (প্রিয়াব) আয়োজিত অনুষ্ঠানের অংশ। বিশ্ব পর্যটন দিবস সামনে রেখে এর আয়োজন করা হয়। সাড়া দাও বাংলাদেশের সমন্বয়কারী মিল্টন দাশ বলেন, ‘আমরা ভালো সাড়া পেয়েছি। শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণ বেশি ছিল। পাশাপাশি বিভিন্ন পেশাজীবী ব্যক্তিরাও এসেছেন ভোট দিতে। সবাই বলেছেন, সুন্দরবনের পক্ষে প্রচারণার ক্ষেত্রে সরকারি উদ্যোগের প্রয়োজন রয়েছে। বিশেষ করে বিদেশে বাংলাদেশ দূতাবাসের মাধ্যমে প্রচারণা জোর চালানো দরকার। এতে প্রবাসীসহ বিশ্ববাসীর মধ্যে একটা ভালো সাড়া পড়বে। আর এটা সুন্দরবনকে সপ্তাশ্চর্যের শীর্ষে নিয়ে আসার জন্য বেশ কার্যকর হবে।’
দিনব্যাপী এ অনুষ্ঠানে ছিল অনলাইন ভোটিং, আলোচনা ও কনসার্ট। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ পর্যটন করপোরেশনের চেয়ারম্যান হেমায়েত উদ্দিন তালুকদার। বিশেষ অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিশনার সিরাজুল হক খান, জেলা প্রশাসক ফয়েজ আহম্মদ, প্রিয়াবের সভাপতি এনায়েতুল্লাহসহ অনেকে।
সুইজারল্যান্ডভিত্তিক নিউ সেভেন ওয়ান্ডার্স ফাউন্ডেশন আয়োজিত প্রাকৃতিক সপ্তাশ্চর্য নির্বাচনের চূড়ান্ত পর্বে উন্নীত ২৮টি স্থানের একটি হলো সুন্দরবন। ইন্টারনেটে www.new7wonders.com ঠিকানার ওয়েবসাইট থেকে সুন্দরবনের পক্ষে ভোট দেওয়া যাবে।

Advertisements

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out /  Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  Change )

Connecting to %s